ময়মনসিংহে করোনার সংক্রমণ ২ হাজার ছাড়াল

  চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীসহ ময়মনসিংহে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ দুই হাজার ছাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ৩৭ জনসহ জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ২০৮৯ জনের। আক্রান্তদের মধ্যে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. চিত্ত রঞ্জন দেবনাথসহ চিকিৎসক ও নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীর এই সংখ্যা ৩৪৩ জন। ময়মনসিংহ বিভাগে করোনা সংক্রমিত স্বাস্থ্যকর্মীর এই সংখ্যা প্রায় ছয়শ’।

হাসপাতালে স্বাস্থ্যকর্মীদের একটা বড় অংশ করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে রোগীদের সেবাদান।

এক হাজার শয্যার রেফারেল চরিত্রের ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিস্থিতি সামাল দিতে মেডিক্যাল কলেজের প্রভাষকদের দিয়ে চালানো হচ্ছে হাসপাতালে আসা রোগীদের চিকিৎসা সেবা, সংকুচিত করা হয়েছে বেশ কয়েকটি ইউনিটের সেবাদান। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে নেফ্রোলজী বিভাগে কিডনী রোগীদের ডায়ালাইসিস ও সিটি স্ক্যান পরীক্ষা।

এসব নানা কারনে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বেশিরভাগ বিছানা এখন খালি পড়ে থাকছে। কমে গেছে সেবা প্রত্যাশীর সংখ্যাও।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ফী নির্ধারনের পর থেকে নমূনা পরীক্ষার হার কমে আসলেও ময়মনসিংহে করোনার সংক্রমণ দুই হাজার ছাড়িয়েছে। ফী নির্ধারণের আগে যেখানে প্রতি ২৪ ঘন্টায় ৫০০ শতাধিক নমূনা পরীক্ষা করা হত ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাবে। সেই সংখ্যা এখন কমে অর্ধেকে দাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় ৩২২ টি নমূনা পরীক্ষায় নতুন করে ৩৭ জনসহ জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ২০৮৯ জনের। আক্রান্তদের মধ্যে একটা বড় অংশ হচ্ছেন স্বাস্থ্য কর্মী।

ময়মনসিংহের সিভিল সার্জন ডা. এবিএম মশিউল আলম জানান, ৮০জন চিকিৎসক, ১১৭ জন নার্স ও ১৪৬ জন স্বাস্থ্যকর্মীসহ মঙ্গলবার পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪৩ জন স্বাস্থ্যকর্মী। এর মধ্যে মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. চিত্ত রঞ্জন দেবনাথসহ ৬৪ জন চিকিৎসক, ১১৬ জন নার্স ও ১১৪ জন স্বাস্থ্যকর্মী মিলিয়ে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেরই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৯৪ জন। এদের মধ্যে আটজন চিকিৎসক কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ময়মনসিংহ বিভাগে ১৩৪ জন চিকিৎসক, ১৫৮জন নার্স ও ৩০১ জন স্বাস্থ্যকর্মীসহ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৯৩ জন।

তবে স্বাস্থ্যকর্মীদের সুস্থ্যতার হার ৬০ শতাংশ-দাবি স্বাস্থ্য বিভারেগ। সুস্থ্য স্বাস্থ্যকর্মীরা ইতোমধ্যে কাজে যোগও দিয়েছেন বলে জানান ময়মনসিংহ স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক ডা. আবুল কাশেম।

ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. জাকিউল ইসলাম জানান, হাসপাতালের আক্রান্ত ৮০ জন চিকিৎসকের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ্য হয়ে কাজে যোগ দিয়েছেন ৫৭ জন। সুস্থ্যতার পাশাপাশি নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছেন চিকিৎসসহ স্বাস্থ্যকর্মীরা। ফলে হাসপাতালের সেবাদান ব্যাহত হচ্ছে বলে জানালেন এই সহকারী পরিচালক।

তিনি আরও জানান, চিকিৎসক ও নার্সসহ স্বাস্থ্য কমীরা করোনা আক্রান্ত হওয়ার কারনে হাসপাতালের বর্হিবিভাগ, অন্ত বিভাগ, ওয়ানষ্টপ সার্ভিস ও জরুরি বিভাগের সেবাদানসহ রোগীদের রোগ নির্ণয়ের পরীক্ষায় কিছুটা পরিবর্তন আনতে হয়েছে।

অন্তবিভাগের কিডনী রোগীদের ডায়ালাইসিস সেবা ও বর্হিবিভাগের সিটি স্কান পরীক্ষা বন্ধ করে দিতে হয়েছে। বর্হিবিভাগে মেডিসিন ও সার্জারি বিভাগের সকল শাখা বন্ধ রেখে মেডিসিন ও সার্জারি বিভাগের চিকিৎসকদের মাধ্যমে মূল চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে। সুস্থ্য চিকিৎসদের ৩ ভাগ করে দুইটি গ্রুপকে দিয়ে নির্ধারিত সময় পর্যন্ত কাজ করানো হচ্ছে। আরেকটি গ্রুপকে রাখা হচ্ছে স্টক হিসেবে। পালাকরে এভাবে কাজ করার কারনে চিকিৎসক ও নার্সসহ স্বাস্থ্য কর্মীরা রোগীদের সেবা দিতে প্রতিনিয়ত হিমসিম খাচ্ছেন। এরকম পরিস্থিতি হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা স্বাভাবিকের চেয়ে এক তৃতীয়াংশে নেমে এসেছে।

করোনার আগে প্রতিদিন গড়ে যেখানে ২৪০০-২৬০০ রোগী ভর্তি থাকত, এই সংখ্যা কমে এখন এক হাজারে দাড়িয়েছে। একই অবস্থা হাসপাতালের বর্হিবিভাগ, জরুরি বিভাগসহ ওয়ানষ্টপ সার্ভিসেও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *