সিজারে পুরুষ কেন?

সিজারে পুরুষ কেন?

বাংলাদেশে কি নারী ডাক্তারের এতোটাই অভাব? আপনারা যারা বিয়ে করেছেন,,ছেলে মেয়ের বাবা হবেন তারা কান খাড়া করেন শুনে রাখুন।
আপনার স্ত্রীকে ডেলিভারির নামে কিসের সিজার করাচ্ছেন? যে সিজার পুরুষ ডাক্তার দিয়ে করানো হয়। মনে রাখবেন- আপনার স্ত্রীর গোপন অঙ্গ আপনি ব্যতিত অন্য কোনো পুরুষের দেখার অধিকার নেই। যদি এরকমটা হয়,তাহলে কাল কিয়ামতের ময়দানে আল্লাহর নিকট এর জবাবদিহিতা আপনাকেই করতে হবে।

এই লজ্জাটা কার? লজ্জাটা আপনার।
এই লজ্জাটা গোটা মানবজাতির।

আসুন নিয়ম বদলায়।

অন্যান্য দেশ গুলোতে স্ত্রীর ডেলিভারির সময় স্বামীকে পাশে রাখা হয়। এতে স্ত্রীর মন অনেক বেশী আত্ম-বিস্বাসী হয়ে ওঠে। আর স্ত্রীরা ভাবে নতুন কোন মানুষকে পৃথিবীতে আনতে হয়তো আমার মৃত্যুও হতে পারে, কিন্তুু আমার সৌভাগ্য যে, আমার এই জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে আমার স্বামী আমার পাশে আছে, আপাতত আমি তার চেহারার দিকে তাকিয়ে সব যন্ত্রনা হাঁসিমুখে মেনে নিতে পারবো। কিন্তু আমাদের বাংলাদেশে আঁতুরঘর তো দূরের কথা হসপিটাল এর অপারেশন রুমের আশেপাশে ও স্বামীকে রাখা হয়না! কিছু কিছু ডাক্তারের আত্বসম্মানে লাগে-স্বামী পাশে থাকতে চাইলে!
আমি মনে করি একজন স্বামী যদি স্ত্রীর পাশে থেকে ডেলিভারি বা সিজারের কষ্ট টা নিজ চোখে দেখে। তবে স্বামী পরবর্তিতে স্ত্রীর সাথে কখনোই খারাপ ব্যবহার করার সাহস হতো না, সে যতো নিষ্ঠুর পুরুষ-ই হোক না কেন। একটু হলেও তার স্ত্রীর প্রসব যন্ত্রনার কথা উপলব্ধি করে তার স্ত্রী কে সব সময় মায়ার চাদরে আগলে রাখতো।

এটা বেশি বেশি শেয়ার করুন। আমি জানি বাংলাদেশে হয়তো এই নিয়মটা কখনোই বদলাবে না, তারপরও মানুষ একটু হলেও সচেতন হোক, এবং ভালো মহিলা ডাক্তার দ্বারা তার স্ত্রীর সিজার করাক

SHARE THIS POST

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *