তারাকান্দা উপজেলায় হতদরিদ্র পরিবার পেলো প্রধানমন্ত্রীর খাদ্য সহয়তা উপহার।

ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলায় বিভিন্ন ইউনিয়নের তালিকাভূক্ত ১০৭ জনকে তারাকান্দা উপজেলা চত্বরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এ আক্রান্ত এবং ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী উপহার দেওয়া হয়।

করোনা পরিস্থিতিতে করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯) এ আক্রান্ত ও ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল হতে প্রাপ্ত অনুদান দ্বারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে তারাকান্দা উপজেলার ১০৭ জন হতদরিদ্র নরসুন্দর, কামার,কুমার,দিনমজুর,রিক্সা চালক, ভিক্ষুক,স্বামী পরিত্যাক্তা বিধবাদের মাঝে বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিলো ১৪৭,ময়মনসিংহ-২ আসনের মাননীয় সাংসদ জনাব শরীফ আহমেদ এমপি, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী,গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় কিন্তু জরুরী ভিত্তিতে ঢাকায় চলে যাওয়ার কারণে তিনি থাকতে পারেন নাই।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজাবে রহমত সাহেবের সভাপতিত্বে,আলোচনা ও উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, তারাকান্দা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট মোঃ ফজলুল হক,সহকারী কমিশনার (ভূমি)জিন্নাত শহীদ পিংকি,উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানদ্বয়,নজরুল ইসলাম নয়ন ও সালমা আক্তার কাকন,উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জাকারিয়া আলম তালুকদার,বণিক সমিতি ও প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ নূরুজ্জামান সরকার বকুল, উপজেলা তাঁতীলীগের আহবায়ক, সায়ের আলমগীর সরকার টুটুল,বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ,ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিগণ সহ স্থানীয় সাংবাদিক ও সুধী সমাজের নেতৃবৃন্দ।

উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন,করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া গরীব,অসহায়,দুঃস্থ ব্যক্তিদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে তবে তা প্রয়োজনের তুলনায় সামান্য, অনেকেই আজ এসেছেন,সাহায্য পেলেন না,কারণ এগুলো আগে তালিকাভুক্ত করা, গতবছর আমরা অনেক সহয়তা দিয়েছি,ভবিষ্যতে আরো বাড়ানো হবে।আপনারা একে অন্যকে সাহায্য করবেন, নেত্রীর জন্য দোয়া করবেন ইনশাআল্লাহ,তিনি কাউকে বিনা খাবারে মৃত্যু হতে দেবেন না।

তারাকান্দা উপজেলার হতদরিদ্র ১০৭ জনকে প্রত্যককে চাল,ডাল,আলু,সয়াবিন তেল লবণ,চিনি সহ শুকনো খাবারের ১টি বস্তা প্রদান করা হয়।এ ছাড়াও আগুনে পুড়ে ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া শাহিন আলম নামে ১জনকে ৫০০০ টাকার চেক প্রদান করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজাবে রহমত সভাপতির বক্তব্যে বলেন,মানুষ মানুষের জন্য,মানবতার জন্য এ ধরনের মানবিক সহায়তা উপহার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে সামনের দিনেও অব্যাহত থাকবে,আপনারা সবাই ওনার জন্য দোয়া করবেন।এগুলো কে ত্রাণ বা খায়রাতি মনে করবেন না এগুলো মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার।তিনি আগত সম্মানিত অতিথি ও ইলেকট্রনিকস ও প্রিন্ট মিডিয়ার সকল সাংবাদিকদের ধন্যবাদ জানান।কষ্ট সয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে উপহার নিতে আসায় সুবিধাভোগীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

SHARE THIS POST